সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৩:৩৯:২৩
সংবাদ শিরোনাম
 
পাবনায় বিষপানে শিশু সন্তানসহ মায়ের আত্মহত্যা
Online Desk | প্রকাশ: ০৫:০০, শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা:
পাবনার ঈশ্বরদীতে দাম্পত্য কলহের জেরে পাপিয়া সুলতানা (৩০) নামের এক গৃহবধু দুই শিশু সন্তানের মুখে বিষ ঢেলে নিজেও বিষ পান করেছেন। এ ঘটনায় পাপিয়া এবং শিশু সন্তান জীবন মারা গেছে। পাপিয়ার অন্য সন্তান ইমনকে (৪) আশংকাজনক অবস্থায় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে ঈশ্বরদী উপজেলার মূলাডুলী ইউনিয়নের বহরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


পুলিশ এবং স্থানীয় সুত্র জানান, উপজেলার বহরপুর গ্রামের পাঞ্জাব আলীর ছেলে মিজানুর রহমানের সাথে একই গ্রামের আব্দুল হামিদের মেয়ে পাপিয়ার প্রায় ১০ বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে মিজান আর পাপিয়ার দাম্পত্য কলহ লেগেই ছিলো। মিজান ঈশ্বরদী উপজেলার একটি এনজিওতে কাজ করতেন। তাদের তিনটি সন্তান ছিলো।


প্রতিবেশীরা জানান, দাম্পত্য কলহের জেরে শুক্রবার রাতে মিজানুর পাপিয়াকে মারধর করে। এ ঘটনার পর পাপিয়া তার দুই শিশু জীবন ও ইমনের মুখে বিষ ঢেলে নিজেও বিষ পান করে। শিশুদের আর্তচিৎকারে বাড়ীর লোকজন তাদের উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পাপিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন। আশংকাজনক অবস্থায় পাপিয়ার দুই শিশু সন্তান জীবন ও ইমনকে শুক্রবার রাতেই পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পরে জীবন মারা যায়।


ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিমান কুমার দাশ সিল্কসিটি নিউজকে বলেন, পাপিয়া ও তার শিশু সন্তানের অপমৃত্যুর ঘটনায় পাপিয়ার ভাই মিলন প্রামনিক বাদী হয়ে ঈশ্বরদী থানায় আজ শনিবার দুপুরে একটি মামলা দায়ের করেছেন। শুক্রবার রাতেই পাপিার স্বামী মিজানুর রহমানকে পুলিশ আটক করেছে। আজ শনিবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।


স/মি

 

পাঠকের মন্তব্য ( ০ )
Login